Templates by BIGtheme NET
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

মুক্তবিহঙ্গ

শ্রেয়সী শবনম শ্রেয়া:
আদতেও আমি জানিনা আমি বেঁচে আছি কিনা। তবে বেঁচে থাকার এক প্রবল ইচ্ছে রয়েছে আমার ভেতর। আর সেই ইচ্ছেটাই হয়তো আমার অন্তরাত্মাকে শক্তি দেয়, প্রেরণা দেয় বেঁচে থাকবার।দৈহিকভাবে আমরা যে শ্বাস প্রশ্বাস নেই তাকে বেঁচে থাকা বলে না-বেঁচে থাকা বলে মনের বেঁচে থাকাটাকে, মনের সজীবতা কে, মনের সুপ্ত বাসনার প্রকাশ কে এবং সেইসাথে প্রচ্ছন্ন শক্তির প্রকাশকে।

সুপ্ত বাসনার কিংবা আত্মার প্রচ্ছন্ন শক্তির প্রকাশ- বেঁচে থাকার অন্যতম দুটি শর্ত। অথচ অধিকাংশ মানুষের ভেতরই এ দুটো বিষয় অনুপস্থিত। মুক্ত বিহঙ্গের মত ডানা মেলে দেবার ইচ্ছে সকলেই নিয়ে জন্মায়। যে যতদিন এই ইচ্ছেটা নিজের মনের ভেতর পুষে রাখতে পারে ঠিক-ততদিনই সে বেঁচে থাকে।আর যখন সেই আকাঙ্ক্ষাটা তার ভেতর আস্তে আস্তে শেষ হয়ে যেতে থাকে তখনই সেও আস্তে আস্তে,বলা যেতে পারে ক্রমাগত মৃত্যুপথযাত্রী হয়। বেঁচে থাকা কিংবা মরে যাওয়া কোনোটাই কর্পূর নয়।এক নিমিষে কাছে এসে ধরা দেবার ক্ষমতা দুটোর একটারও নেই। বেঁচে থাকতে চাওয়ার ইচ্ছেটাই মানুষকে বাঁচিয়ে রাখতে পারে-ইচ্ছের বয়ামটা যখন আস্তে আস্তে খালি হতে থাকে তখন মানুষেরও বেঁচে থাকার দিন আস্তে আস্তে ফুরিয়ে আসে।

আগেই বলেছি, “মুক্ত বিহঙ্গের মত উড়বার ইচ্ছে নিয়েই মানুষ জন্মায়” – আমিও জন্মেছি এবং এই ইচ্ছেটা আজও আমার ভেতর বহাল। আমি মরে যাইনি-তবে হ্যা আমি যে বেঁচে আছি তা নিয়ে অর্থাৎ আমার বেঁচে থাকা নিয়ে আমি যথেষ্ট সন্দিহান। আমার বেঁচে থাকতে চাইবার ইচ্ছেটাই হয়তো আজও আমায় বাঁচিয়ে রেখেছে।পাখি হবার ইচ্ছেটা আমার বরাবরের, ডানা মেলে দেবার আকাঙ্ক্ষাই যেন আমার জীবনের একমাত্র অভিপ্রায়। যেন ওই মুক্ত আকাশের মাঝে নিজেকে বিলিয়ে দিয়ে একবার-শুধু মাত্র একবার প্রাণভরা একটু শ্বাস নেবার জন্যই আমার বেঁচে থাকা।

বেঁচে থাকার তাড়নায় পাখি হতে পারলেও পারিনি বাঁধনহীন পাখি হতে। হাতে-পায়ে পরানো সেই অদৃশ্য বেরি প্রতিনিয়ত আমার সেই মুক্তবিহঙ্গ হবার ইচ্ছের বয়ামটা একটু একটু করে খালি করে দিচ্ছে। খাঁচায় বন্দি পাখির সেই ডানা ঝাপটানো,সেই মুক্ত হবার আর্তনাদ – ক্রমাগত আমায় তাড়া করে বেড়াচ্ছে। বেঁচে থাকার ইচ্ছেটা আমায় যতটা না সামনে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে, ঠিক তার দ্বিগুন পেছনে ঠেলে দিচ্ছে পাখিটার সেই হাহাকার, সেই আর্তনাদ, সেই বিষন্নতা। যন্ত্রণা,প্রবল যন্ত্রণা আর তারপর যা আসে তা হল মানসিক যন্ত্রণা তথা ডিপ্রেশন-যা একটা মানুষকে তিলে তিলে শেষ করে দিতে পারে। মানুষের জীবনকে বিষন্নতায় ভরিয়ে দিতে যার কোন জুড়ি নেই। আমি বাঁচতে চাই,আমি আমার আমিকে বাঁচাতে চাই, একবার প্রাণ ভরা শ্বাস নিতে চাই -দেবে একবার সুযোগ? হে সমাজ আমি তোমাকেই বলছি,কেবল একটিবার দাও সে সুযোগ- কথা দিচ্ছি অবমর্যাদা করবো না সে স্বাধীনতার….!!!

লেখক: শিক্ষার্থী
বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ময়মনসিংহ