Templates by BIGtheme NET
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

মালয়েশিয়ায় মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের মাধ্যমে দ্রুত পাসপোর্ট বিতরণ

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া:
মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যে দূতাবাসের মোবাইল ক্যাম্পিং। নির্ধারিত তারিখের আগেই কর্মীদের হাতে পাসপোর্ট বিতরন করেছে দূতাবাস।

মালয়েশিয়ায় অবৈধদের বৈধকরন প্রক্রিয়া গত ৩০ জুন শেষ হলেও প্রদেশে প্রদেশে চলছে দূতাবাসের মোবাইল ক্যাম্পিং। দূতাবাসের পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার প্রথমসেচিব মো: মশিউর রহমান তালুকদারের নেতৃত্বে পেনাং ক্যাম্পিং-এ প্রবাসী কর্মীদের পসপোর্ট বিতরণ করছেন পাসপোর্ট বিভাগের সহকারি সুশান্ত সরকার, দিলারা বেগম, তারিক আহমদ ও আমান। অনেকের অভিযোগ সময়মত তারা পাসপোর্ট হাতে পাননি। কিন্তু দূতাবাসের সংশ্লিষ্টরা বলছেন তাদের সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত আছে।

দূতাবাস সংশ্লিষ্ট একজন এ প্রতিবেদককে বলেন, হাই কমিশনার মহ: শহীদুল ইসলামের দিক নির্দেশনায় দূতাবাস সহ মালয়েশিয়ার প্রত্যেকটি প্রদেশে সরকারি ছুটির দিনেও পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে। আমরা অত্যন্ত তৎপর রয়েছি প্রবাসী ভাইদের সেবা প্রদানে। চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ৮৫ হাজার ৩৪২ টি পাসপোর্ট আবেদনের প্রেক্ষিতে ৮৪ হাজার ৫৪২ টি পাসপোর্ট প্রবাসীদের প্রদান করা হয়েছে।

তিনি বলেন, পাসপোর্ট আবেদনকারির আবেদনে যদি কোনো ক্রুটি না থাকে তাহলে সময়ের আগে ১৫ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে। উদাহরন দিয়ে এ কর্মকর্তা বলেন, শনি ও রোববার পেনাংয়ে পাসপোর্ট বিতরণ করছি এখানে শওকত আলী, জাহাঙ্গীর কুদ্দুছ ও শাহ আলম ১৫ দিন আগে নতুন পাসপোর্টের আবেদন করেছিলেন তাদের আবেদনে কোনরকম ত্রুটি না থাকায় ১৫ দিনের মাথায় তাদের হাতে পাসপোর্ট প্রদান করা হয়েছে বলে জানালেন তিনি।

এ সত্যতা যাচাইয়ে শওকত আলী, জাহাঙ্গীর কুদ্দুছ ও শাহ আলমের কথা হয় এ প্রতিবেদকের। তারা বলেন, আজ ১৪ জুলাই আমরা পসপোর্ট হাতে পেয়েছি।

সময়মত পাসপোর্ট পাওয়াতে তারা খুশি। এখন সোনার হরিণ পারমিট পাবার পালা। দ্রুত পাসপোর্ট প্রদানে দূতাবাসের সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন রেমিটেন্স যোদ্ধা শওকত আলী, জাহাঙ্গীর কুদ্দুছ ও শাহ আলমরা।

এ দিকে মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের পাশাপাশি শ্রম বিভাগের কর্মকর্তারা পরিদর্শন করছেন দেশটির বিভিন্ন ক্যাম্প। ক্যাম্পে থাকা বাংলাদেশি কর্মীদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করছেন এবং যাদের সাজার মেয়াদ শেষ হয়েছে তাদের দ্রুত দেশে পাঠাতে ক্যাম্প কমান্ডারদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। এ সপ্তাহে দুটি ক্যাম্প থেকে ১৪৯ বাংলাদেশি দেশে ফেরার অপেক্ষায় রয়েছেন বলে দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে।