Templates by BIGtheme NET
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

নতুন-পুরনো সমন্বয়ে পটুয়াখালী বিএনপির কমিটি

বিশেষ প্রতিবেদন: বারবার সময় বেঁধে দিয়েও তৃণমূল পুনর্গঠন করতে পারছে না বিএনপি। ৭৫টি সাংগঠনিক জেলার মধ্যে এখন পর্যন্ত এক-তৃতীয়াংশ জেলায়ও কমিটি করতে পারেনি দলটি। তবে মেয়াদোত্তীর্ণ সব জেলা ও মহানগর কমিটি ৩০ নভেম্বরের মধ্যে গঠন করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে দলের হাইকমান্ড। এরই অংশ হিসেবে পটুয়াখালী জেলা বিএনপির কমিটি গঠনের তোড়জোড় শুরু হয়েছে।

পটুয়াখালী বিএনপির সূত্র জানান,নতুন কমিটিতে পদপ্রত্যাশী নেতাদের বেশির ভাগই এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন কেন্দ্রে নিজেদের জন্য তদবির করতে।

আগামী কমিটি সম্পর্কে সূত্র জানান, বর্তমান কমিটিতে যারা আছেন তাদের অধিকাংশ এবারও থেকে যাবেন। পাশাপাশি বিগত সময়ে বঞ্চিত হয়েছেন এবং আন্দোলন-সংগ্রামে সক্রিয় ছিলেন এমন নেতাদের সমন্বয়ে নতুন কমিটি হতে পারে।
patuakhali-bnp2
নতুন কমিটিতে বর্তমান সভাপতি সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলতাফ হোসেন চৌধুরী আবার সভাপতি হচ্ছেন এমন খবর অনেকটা নিশ্চিত। দলের ‘এক নেতার এক পদ’ নীতি অনুসারে তিনি কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যানের পদ ছেড়ে দেবেন বলে জানা গেছে। তবে সিনিয়র সহসভাপতি, সহসভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদকসহ অন্যান্য পদে রদবদল হওয়ার গুঞ্জন আছে।

২০১২ সালে আলতাফ হোসেন চৌধুরীকে সভাপতি এবং আব্দুর রব মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে পটুয়াখালী জেলা বিএনপির আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। পরে ২০১৩ সালের ১৪ মে ১৭১ সদস্যবিশিষ্ট জেলার পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া্।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, নতুন কমিটির জন্য সিনিয়র সহসভাপতি পদে জেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক আব্দুর রশিদ চুন্নু মিয়া, সাবেক সহসভাপতি শাহাদৎ হোসেন মৃধা, সাবেক সহসভাপতি শহিদুল আলম তালুকদার ও বর্তমান সিনিয়র সহসভাপতি ইঞ্জিনিয়ার ফারুক আহমেদ তালুকদারের নাম শোনা যাচ্ছে।

সাধারণ সম্পাদক হিসেবে যাদের কথা শোনা যাচ্ছে তারা হলেন বর্তমান সাধারণ সম্পাদক এম এ রব মিয়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক স্নেহাংশু সরকার ওরফে কুট্টি সরকার ও বর্তমান সহসভাপতি মাকসুদ আহমেদ বায়েজিদ পান্না।

অন্যদিকে সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. মজিবুর রহমান টোটন, দুমকী উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যক্ষ বাহাউদ্দীন বাহার ও জেলা যুবদলের আহ্বায়ক মশিউর রহমানের নাম শোনা যাচ্ছে।

তবে সময়স্বল্পতা ও প্রতিকূল পরিস্থিতির কারণে সম্মেলন না হওয়ার সম্ভাবনা কম। বিকল্প পদ্ধতিতে জেলা কমিটি গঠন করা হতে পারে বলে কয়েকজন নেতা জানান।
patuakhali-bnp1
জেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী এ ব্যাপারে বলেন, ‘বিগত সময়ে আন্দোলন-সংগ্রামে যারা মাঠে ছিলেন, দলে যাদের ত্যাগ আছে, যেসব যোগ্য নেতাকে নিয়ে নতুন কমিটি করা হবে। ভেদাভেদ নয়, আমরা সবাইকে নিয়ে রাজনীতি করতে চাই।’

কেন্দ্রীয় বিএনপির সূত্রে জানা গেছে, চলতি মাসের মধ্যে বেশ কয়েকটি জেলার কমিটি করা হবে। তার মধ্যে পটুয়াখালী জেলা কমিটির বিষয়টিও আছে। তবে যেভাবেই কমিটি গঠন করা হোক, তাতে আন্দোলন-সংগ্রামে ছিলেন এমন নেতাদের নেতৃত্বে আনা হবে।