Templates by BIGtheme NET
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ

পূর্বাচলে নির্মাণের অপেক্ষায় ১৪২তলা আইকন টাওয়ার, আজ চুক্তি

নিউজ ডেস্ক : ঢাকার অদূরে পূর্বাচলে নির্মাণ হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে ১৪২তলা আইকন টাওয়ার। সম্প্রতি এটির জায়গা নির্ধারণ ও নকশা তৈরি করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। এটি নির্মাণে রোববার যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কেপিসি গ্রুপ এবং বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হতে যাচ্ছে। এছাড়া এই টাওয়ার নির্মাণে আগামী ২৮ জুন আন্তর্জাতিক নিলাম ডাকতে যাচ্ছে রাজউক।

আইকন টাওয়ার নির্মাণ করতে যাওয়া যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কেপিসি গ্রুপের কর্ণধার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কালী প্রদীপ চৌধুরী। ইতোমধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরসহ বিভিন্ন কাজের জন্য কেপিসি গ্রুপের একটি প্রতিনিধি দল নিয়ে এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন।

জানা গেছে, ৬০ একর জায়গায় সুউচ্চ ভবনটি ছাড়াও এটিকে ঘিরে আরও কিছু ছোট-বড় ভবন ও অন্যান্য স্থাপনা থাকবে। ভবনটিতে আন্তর্জাতিক কনভেনশন, এক্সিবিশন সেন্টারসহ থাকবে হোটেল, থিয়েটার ও শপিং মল। এটিকে ঘিরে তৈরি হবে আরও কয়েকটি ছোট-বড় ভবন এবং অনেক নান্দনিক স্থাপনা। উচ্চতার দিক থেকে বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ভবনটি হচ্ছে দুবাইয়ে অবস্থিত ১৬৫ তলার বুর্জ আল খলিফা। পূর্বাচলে এ ভবনটি নির্মিত হলে তা হবে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সর্বোচ্চ উচ্চতার। এটি নির্মাণে প্রাথমিক ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা (১.২ বিলিয়ন ডলার)।

এর আগে গত ২ জুন বাজেট অধিবেশনে ১৪২ তলাবিশিষ্ট একটি আইকন টাওয়ারসহ একটি আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার ও একটি স্পোর্টস কমপ্লেক্স গড়ে তোলার কথা জানান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

অর্থমন্ত্রী বলেন, কনভেনশন সেন্টারের মূল মিলনায়তনে একসঙ্গে ৫ হাজার লোকের বসার ব্যবস্থা থাকবে। স্পোর্টস কমপ্লেক্সের মূল স্টেডিয়ামের ধারণ ক্ষমতা হবে ৫০ হাজার।

মুহিত বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে এ অঞ্চলে কর্মসংস্থান, ব্যবসা বাণিজ্যের ব্যাপক প্রসার হবে। দেশি-বিদেশি সবার কাছে পূর্বাচল আকর্ষণীয় ও দৃষ্টিনন্দন স্থান হিসেবে বিবেচিত হবে।

অর্থমন্ত্রী জানান, এ জন্য এ এলাকাকে জাতীয় যোগাযোগ ব্যবস্থার মধ্যে নিয়ে আসতে হবে। এর সম্ভাব্য ব্যয় নির্বাহের জন্য বাজেটে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ রাখতে হবে। ২০১৮ সালে প্রকল্পটি শেষ হবে।